বরিশালে অসহায় এক রিজিয়ার কিছু কথা…

মে ২২ ২০২০, ২২:৩৬

Spread the love
এইচ. এম মাছুম: রিজিয়া বেগম ষাটউর্ধ বয়স । স্বামী ওয়াজেদ সিকদার। বরিশাল সদর উপজেলার ৭ নং চরকাউয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডে স্বামীর বাড়ী। প্রায় ১৫ বছর আগে মারাজান তার স্বামী। নিজের কোন সন্তান নেই। নেই মাতৃ কূল পিতৃ কূলেরও কোন নিকটআত্বীয়। স্বামীর ২য় বিবাহের স্ত্রী এই রিজিয়া।
স্বামীর প্রথম ঘরের ছেলে মেয়েদের সাথে বনিবনা না হওয়ায় স্বামীর মৃত্যুর কিছুদিন পরেই ছাড়তে হয়েছে স্বামীর ভিটা। অন্যের বাড়ীতে থেকে জীবনের সাথে যুদ্ধ করে বেচে থাকাই এখন রিজিয়ার কর্ম।
এমনটিই বলছিলেন অসহায় বিধবা রিজিয়া বেগম। কান্নাজরিত কণ্ঠে তিনি আরো বলেন , শত সন্তানেরা স্বামীর বসত ভিটা থেকে বের করে দেওয়ার পরে পার্শ্ববর্তী এক বাড়ীতে আশ্রয় নিয়ে ভিক্ষা করে পার করেন জীবনের কঠিন মূহুর্তগুলো।
দেশে লকডাউনের ফলে কারো কাছে গিয়ে ভিক্ষাও চেতে পারছেন না। আর কোন বাড়ী গেলেও বেশিরভাগ বাড়ী থেকেই দূর থেকে তারিয়ে দেয়। জীবনের এমন কঠিন মূহুর্তে অনেকটা সময় ক্ষুদার্থ অবস্থাই দিন পার করতে হয় রিজিয়ার। ভোটার আইডি কার্ডে ভূলক্রমে বয়স কম থাকায় ষাটোর্ধ এই নারী পাননা কোন বয়স্ক ভাতা। এমনকি একটা বিধবা ভাতার জন্যও বহুবার গিয়েছেন ইউপি সদস্যর কাছে।
সরকারের ১০ টাকা মূল্যের চালও নেই এই অসহায় নারীর কপালে। এখন পর্যন্ত ভগ্যে জোটেনি কোন ত্রাণ। এভাবেই মানবেতর জীবন যাপন করছেন অসহায় রিজিয়া। রিজিয়া আরো জানান, সর্বশেষ সরকারেের দেওয়া বিশেষ অনুদান ২৫০০ টাকা তাও পেলোনা এই রিজিয়া।
স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও শোনতে চান না তার কথা। রিজিয়া বলেন আমার কোন লোক নেই আমাদের কোন ত্রাণও নেই। আমার মত অসহায় আর জেন কেউ না হয়। মৃত্যু সজ্জায় অসহায় রিজিয়ার জীবন এখন দুঃখ কষ্টের বেরাজালে ধুমরে মুচরে গেছে।
ক্ষুদ্ব কণ্ঠে রিজিয়া বলেন, মেম্বারের কাছে বহুবার গেছি, কিন্তু তার আমার মত গরীবের কথা শোনার সময় তার হাতে য়কুব কম। এ বিষয় ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল কালামের সাথে মুঠো যোগাযোগের চেষ্টা করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

 




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

June 2020
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

%d bloggers like this: