চরকাউয়া বাস টার্মিনাল পুকুরে পরিনত,চরম দূর্ভোগে যাত্রীরা

জুলাই ০৭ ২০১৮, ২২:৩০

এইচ,এম মাছুম: বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়া বাস টার্মিনাল সংস্কার না করায় খানাখন্দ ও বড় বড় গর্তের কারনে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে যাতায়াত কারী লোকজন ও যানবাহন। স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, চরকাউয়া বাস টার্মিনালে সাধারন যাত্রীদের বর্ষায় মহা দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। স্থানীয়রা জানান, বরিশালের পূর্বে সাহেবের হাট, লাহার হাট, গোমা- চরামদ্দি, মৌলোভির হাট- নেহাল গঞ্জ, পেয়ারপুর ডিসি রোড,তালুকদার হাট, হলতা – রানিরহাট সহ বেশ কিছু রুটে হাজার হাজার যাত্রী আসা যাওয়া করে। নদী ভাঙ্গনের ফলে দিন- দিন ক্ষুদ্র হতে চলছে এ বাস টার্মিনালটি। আর সামন্য বৃষ্টি হলেই এ ক্ষুদ্র বাস টার্মিনালটিতে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা।

যারফলে স্কুল কলেজ ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রী , রোগী কিংবা চাকুরিজীবিদের এখানে এসে ভিরের মধ্যে পরতে হয় চরম ভোগান্তিতে । কারন ছোট এই বাস টার্মিনালের বেশিরভাগ যায়গাই সংস্কারহীন ভাবে পরে রয়েছে। যার ফলে রাস্তার পাশে দোকানের সাইড দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে সাধারন যাত্রীদের। এতে দোকানের বেচা কেনায় বিঘ্ন ঘটছে বলে জানান, স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাবসায়ী জানান, বর্ষা আসলেই আমাদের যত ঝামেলা। ইউনিয়ন পরিসদ কিংবা বাস মালিক সমিতি ইচ্ছা করলেই পারে এই সামান্য যায়গাটুকু ঠিক করে দিতে, কিন্তু তারা তা করবেনা। তাদের চোঁখের দৃষ্টিই মনে হয় পরেনা এই যায়গায়।

জসিম নামের এক বাস ড্রাইভার জানায়, বহুবার এই যায়গায় ইট খোয়া ফালানো হইছে, প্রতিদিন অনেক বাস ওঠা নামার ফলে তা থাকেনা । তবে মালিক সমিতি ইচ্ছা করলে যায়গাটুকু সুন্দর ভাবে কার্পেডিং বা ঢালাই দিলে এ সমস্যা নিরসন করতে পারে । এ বিষয় আলমগীর নামে এক যাত্রী জানায়, রাস্তার পাশ দিয়েই হাটছিলাম কিন্তু একটি বাস ছেরে যাওয়ার সময় পানি ছিটকে আমার কাপর নষ্ট হয়ে গেছে। যায়গাটা সংস্কার হলে এই সমস্যা হতো না। রুবেল নামের এক যাত্রী জানায়, টার্মিনালটি ভাঙ্গনের ফলে আমাদেরকে অনেক দূরে নামিয়ে দেয় বাস ড্রাইভাররা।

অনেক সময় ড্রাইভাররা খামখেয়ালিপানা করে আমাদের চরকাউয়া স্কুল থেকেও অনেক দূরে নিমিয়ে দেয়। এর পরে আবার পায়ে হেটে এখানে এসে পরতে হয় চরম দুর্ভোগে। এবিষয় চরকাউয়া বাস মালিক সমিতির সভাপতি মনিরুল ইসলাম ছবি চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ইট ফালানো হইতেছে আমরা এটা দ্রুত সংস্কারের উদ্দ্যোগ নিয়েছি শিঘ্রই সমাধান হবে।




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

April 2020
M T W T F S S
« Mar    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

%d bloggers like this: