তালতলীতে শিক্ষকের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

ফেব্রুয়ারি ১৬ ২০২০, ১৭:৪৪

বরগুনা প্রতিনিধিঃ বরগুনার তালতলী সরকারী কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আব্দুর রহমানকে এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে মুখ বাঁধা এক সন্ত্রাসী। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত গভীর রাতে তালতলী উপজেলা শহরের কলাবাগান এলাকায় তার নিজ বাসভবনে। এ ঘটনার প্রতিবাদে কলেজ শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছে। আহত শিক্ষককে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও আহত পরিবার সূত্রে জানাগেছে, তালতলী সরকারী কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আব্দুর রহমান প্রতিদিনের ন্যায় তার কলেজে অধ্যায়নরত বিভিন্ন শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়িয়ে রাত ১০টার দিকে বাসায় যায়। রাতে খেয়ে তার স্ত্রীকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত অনুমান ২টার দিকে মুখে কাপড় বাঁধা অবস্থায় অজ্ঞাত এক সন্ত্রাসী ধাড়ালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুত্বর আহত করে।

এতে তার শরীরের বিভিন্নস্থানে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখন হয়। তার ডাক চিৎকারে পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়া উপজেলা মৎস্য অফিসার শামীম রেজা, প্রতিবেশী জামালের বাসার লোকজন এগিয়ে আসতে চাইলেও তারা কেহ ঘর থেকে বের হতে পারেনি। তারা জানান, তাদের ঘরগুলোর বাহির থেকে আটকিয়ে রাখে সন্ত্রাসী। এ সময় অপর প্রতিবেশী এছহাক ফরাজীর পুত্র রাসেল ও লাভলীদের বাসার লোকজন আহত প্রভাষক মোঃ আব্দুর রহমানের বাসায় গিয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে তালতলী থানায় সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য তালতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে যায়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশংকাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচার দাবী করে রবিবার বেলা ১১টায় তালতলী সরকারী কলেজের শিক্ষার্থীরা উপজেলা শহরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে। এতে বক্তব্য রাখেন তালতলী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক সভাপতি একেএম কামরুজ্জামান খালেক, সাবেক অধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ খান, সাবেক উপধ্যাক্ষ এম এ জব্বার, অধ্যক্ষ রবিন্দ্র নাথ হাওলাদার (ভারপ্রাপ্ত) ও প্রভাষক এম এ হালিম প্রমুখ।
বক্তারা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দ্রুত এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্ত্রাসীকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান। মানববন্ধনে কলেজের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ অংশ নেয়।

বড়বগী ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম লিটু মুঠোফোনে বলেন, শুনেছি মুখে কাপড় বাঁধা এক সন্ত্রাসী স্যারকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে। সন্ত্রাসী কিভাবে ঘরে প্রবেশ করেছে তাও জানতে পারিনি। তিনি আরো বলেন, আমি যতটুকু জানি স্যারের বাসার দরজা রাত ৯ টা ১০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। কারন এ সময় স্যার বাহিরে প্রাইভেট পড়ান। ধারনা করা হচ্ছে রাতে কোন এক সময় এ সন্ত্রাসী ঘরের মধ্যে ঢুকে রয়েছিল।

পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়া উপজেলা মৎস্য অফিসার শামীম রেজা মুঠোফোনে বলেন, ঘটনার সময় তার ফ্লাটের দরজা বাহির থেকে আটকানো ছিল। যে কারনে ঘটনার সময় আমি ঘর থেকে বাহির হতে পারিনি।

তালতলী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ রবিন্দ্র নাথ হাওলাদার (ভারপ্রাপ্ত) বলেন, আমার কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আব্দুর রহমানকে মুখ বাঁধা এক সন্ত্রাসী কর্তৃক এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুত্ব আহত করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানাই।
তালতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার ডাঃ মংফো বলেন, আহত প্রভাষক মোঃ আব্দুর রহমানের মাথা, কানসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রক্তাক্ত জখমের চিহ্ন রয়েছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

তালতলী থানার ওসি শাহিনুর রহমান বলেন, ঘটনার সংবাদ শুনে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে আহতকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এ ঘটনা কে ঘটিয়েছে তা চিহ্নিত করে ঘটনার কারন উদঘাটনের চেষ্টা অব্যাহত আছে।




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

April 2020
M T W T F S S
« Mar    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

%d bloggers like this: