খালেদার স্বাস্থ্য নিয়ে মিথ্যাচার হয়েছে : ফখরুল

অক্টোবর ২৯ ২০১৯, ২০:১২

 

ডেস্ক প্রতিবেদক: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের পক্ষ থেকে বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে মিথ্যাচার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে যুবদল আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।

সরকারের কাছে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতির পূর্ণাঙ্গ ব্যাখ্যা দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা একটি মিথ্যা সাজানো মামলায় বেগম জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছেন, অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিতে হবে এবং তার পছন্দমত সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে। সবার আগে তার যে আইনগত প্রাপ্য সেই জামিনের জন্য আপনার বাধা দেবেন না। এটা তার সাংবিধানিক অধিকার।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ন্যাম সম্মেলন সফরের সমালোচনা করে তিনি বলেন, এর মাধ্যমে অর্জনটা কি হলো?

সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠবে না উল্লেখ করে ফখরুল বলেন,আমাদের সিনিয়র নেতারা বলেছেন, আমাদের রাস্তায় নামতে হবে, আমাদের আন্দোলন করতে হবে এবং এই দানব সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে বাধ্য করতে হবে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চলমান শুদ্ধি অভিযানের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে ক্ষমতাসীনরা শুদ্ধ নয় এমন মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, তাদের শুদ্ধ হওয়া দরকার।

ক্যাসিনোর প্রসঙ্গ টেনে ফখরুল বলেন, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তারা বলেছিলেন এগুলো আই ওয়াশ নয়। আই ওয়াশতো বটেই গত ৩০ তারিখের নির্বাচনে ২৯ তারিখ রাতেই তো লুট করে নিয়েছেন। এখন ক্যাসিনোর ছোটখাটো দু-একজনকে ধরে দেখাচ্ছেন আমরা শুদ্ধি অভিযান করছি। এই শুদ্ধ অভিযান প্রমাণিত করে তারা শুদ্ধ নন, পরিশুদ্ধ নন তাদের শুদ্ধি হওয়ার প্রয়োজন আছে।

তিনি বলেন,‘আজকে গোটা বাংলাদেশকে তারা অপবিত্র করে ফেলেছে। গোটা বাংলাদেশকে তারা অসুস্থ করে ফেলেছে। আজকের সমাজের দিকে তাকিয়ে দেখুন ধর্ষণ হচ্ছে, নারীর শ্লীলতাহানি হচ্ছে বাবা ছেলেকে মারছে, লুট হচ্ছে, খুন-গুম হচ্ছে কোথাও কোনো জায়গায় শান্তি নেই।

ফখরুল বলেন, দেশ এখন এমন একটা পরিস্থিতিতে অবস্থান করছে রূপপুরের একটি প্রকল্পের ৭৭ ভাগ অর্থ কনসালটেন্টের ধন্যবাদ আর বাকি ৩৩ শতাংশ টাকা কাজের জন্য। তার মানে প্রকল্পের ৭৭ ভাগ টাকায় লুটের বন্দোবস্ত করে রেখেছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আসুন, আমরা ঐক্যবদ্ধ হই। ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই যে দানব সরকারের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলি।

যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরবের সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়নের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়,ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোর্তাজুল করিম বাদরু, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান, মহানগর দক্ষিণের সভাপতি রফিকুল আলম মজনু, উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

%d bloggers like this: