বরিশালের বাজারগুলো সিন্ডিকেটের হাতে জিম্মি, দাম কমেনা মাছ-মাংস-সবজির’

অক্টোবর ১২ ২০১৯, ০২:৩৪

নগরীর কয়েকটি পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সবজি-মাছ-মাংসের পযাপ্ত সরবরাহ থাকলেও চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে প্রায় সব ধরণের ভোগ্য পণ্য।

এ প্রসঙ্গে আলাপকালে নতুন বাজারের ক্রেতা মিসেস জান্নাত আমার বরিশালকে বলেন, ‘৭ বছর ধরে বরিশালে রয়েছি। সপ্তাহে দুই তিনদিন আমি বাজার করি। কিন্তু সব সময়ই দেখেছি সবজি বা মাছ মাংসের দাম হাতের নাগালের বাইলে। বিশেষ করে সিজনাল সবজি গুলো। এসব পণ্যের দাম তো এত হওয়ার কথা নয়। বিক্রেতারা প্রয়োজনে এসব পণ্য পঁচিয়ে ফেলবে তবু কম দামে বিক্রি করবে না। এতে বুঝা যায়, বাজারগুলো সিন্ডিকেটের হাতে জিম্মি।’

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শিম বিক্রি হচ্ছে কেজি ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ১০০-১২০ টাকা। ছোট আকারের ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা পিস, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০-৫০ টাকা। গত সপ্তাহে ৪০-৫০ টাকা পিস বিক্রি হওয়া পাতাকপির দাম কমে বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকায়। দাম কমার এ তালিকায় আছে মুলাও। শীতের আগাম এ সবজিটির কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০-৬০ টাকা।

কয়েক মাস ধরে চড়া দামে বিক্রি হওয়া পাকা টমেটো ও গাজরের দাম এখনো চড়াই রয়েছে। পাকা টমেটো আগের সপ্তাহের মতো প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৪০ টাকা কেজি। গাজর বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহে ছিল ৮০-১০০ টাকা।

শীতের আগাম সবজির সঙ্গে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে লাউ, করলা, ঝিঙে, বরবটি, বেগুন, পটল, ঢেঁড়স, উসি, ধুন্দলসহ সব ধরনের সবজি। গত সপ্তাহের মতো ছোট আকারের লাউ বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা পিস।

করলা বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকা কেজি। একই দামে বিক্রি হচ্ছে বরবটি। বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা কেজি। চিচিংগা, ঝিঙে, ধুন্দলের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৭০ টাকার মধ্যে। এ সবজিগুলোর দাম সপ্তাহের ব্যবধানে অপরিবর্তিত রয়েছে।

আমিষের বাজারে রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২৪০-৩০০ টাকা কেজি। তেলাপিয়া ১৩০-১৬০ টাকা, পাঙাশ ১২০-১৫০ টাকা, শিং ৪০০-৬০০ টাকা, কাচকি ২৫০-৩৫০ টাকা, পাবদা ৪০০-৬০০ টাকা, ট্যাংরা ৫৫০-৭০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি গরু ও মহিষের মাংস বিক্রি হচ্ছে ৫৫০-৫৭০ টাকা, খাসি ৭৫০-৭৮০ টাকা, ব্রয়লার ১৪০-১৫০ টাকা, লাল লেয়ার ১৮০-২০০ টাকা, পাকিস্তানি কক ২৫০-২৭০ টাকা। ফার্মের মুরগির ডিম বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকা ডজন।

 




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

August 2020
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

Shares
%d bloggers like this: