ব্রেকিং নিউজ

চরমোনাই‘র বিএনপির নেতা সালাম’র বহিষ্কারের দাবিতে বিক্ষোভ

অক্টোবর ২৩ ২০২১, ১৮:২৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপি’র কনভেনার এ.কে.এম আব্দুস সালাম রাঢ়ী দলের সকল পর্যায়ে নেতা কর্মীদের আ’লীগের নির্বাচন পরিচালনা ও নৌকা মার্কায় ভোট প্রদানের নির্দেশ দেওয়া এবং নির্বাচনে ‘‘আ’লীগ-বিএনপি ঐক্য’’ দল বিরোধী এমন ঘোষনা দেওয়ার প্রতিবাদে সালাম রাঢ়ী’র বিরুদ্ধে শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকেল ৪ টার দিকে চরমোনাই বিশ্বাসের হাট হাইস্কুল মাঠে ইউনিয়নের বিএনপির নেতাকর্মীরা তার বহিষ্কার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

উক্ত সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপি’র কো-কনভেনার মোঃ আমিনুল ইসলাম (মাসুম মাস্টার)। বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপি’র অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীর বক্তব্য রাখেন। চরমোনাই ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি রুবেল হোসেন আকন বলেন, আমাদের ইউনিয়ন বিএনপি’র কনভেনার আব্দুস সালাম রাঢ়ী আওয়ামী লীগকে সাপোর্ট দিয়েছে তা আমরা মনে প্রাণে মেনে নিতে পারিনা। আ’লীগ ক্ষমতায় আসার পরে আমরা বিএনপি কর্মীরা বিভিন্ন হামলা,মামলা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছি। তাই তার নিজস্ব সিদ্ধান্ত আমাদের দলের নয়।

একই ওয়ার্ডের যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন বলেন, আমরা চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের যারা আছি সবাই কেন্দ্রীয় কমিটির সিদান্ত অনুযায়ী এই সরকারের আমলে কোন নির্বাচনে বিএনপি অংশ গ্রহন করবেনা। তাই দলীয় সিদান্ত অনুযায়ী আমরা কোন প্রার্থী দেই নি। এবং এই নির্বাচনে চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপি কাউকে কোন ভোট দিবো না বলে আজ ঘোষনা করলাম। চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুর রশিদ ফকির সমাবেশে তার বক্তব্যে বলেন সালাম রাঢ়ী টাকার কারনে আ’লীগের সাপোর্ট দিয়েছে এটা কোন মতেই বিএনপির নেতা-কর্মী ও সাধারণ বিএনপি সমর্থকরামেনে নিতে পারে না।

এসময় তিনি আরো বলেন কিছুদিন আগে চরমোনাই বিএনপি’র কনভেনার আবদুস সালামের সভাপতিত্বে রাজারচর হাইস্কুল মাঠে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠান করা হলেও সেখানে কোন দোয়া করা হয়নি। বরং জেলা ও থানা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের কে ভুল বুঝিয়ে উক্ত অনুষ্ঠানে নিয়ে আসেন ছালাম রাঢ়ী।

এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক। বিএনপির সারাদেশের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বর্জন করেছে ঠিক সেই সময় সালাম বিএনপি নেতা হয়েও টাকার বিনিময় আওয়ামী লীগ নেতাকে সার্পোট দিচ্ছে এটা আমরা সাধারন নেতাকর্মীরা মেনে নিতে পারি না। তাই আমরা তার বহিস্কারের দাবিতে এই বিক্ষোভ সমাবেশ এর আয়োজন করেছি। সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে আমিনুল ইসলাম মাসুম বলেন, আব্দুস সালাম রাঢ়ী আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চরমোনাই ইউনিয়নের যে আওমীলীগকে সাপোর্ট দিয়েছে। তা আমাদের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক ও সারা বাংলাদেশে আজ প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে দাড়িয়েছে।

কি কারনে সালমা রাঢ়ী আওয়ামী লীগকে সাপোর্ট দিয়েছে তা আমাদের জানা নেই। তিনি নেতাকর্মীদের প্রশ্নের উত্তর দিতে না পারলে আমরা থেমে থাকবো না। প্রয়োজনের আমরা নেতাকর্মীরা ঢাকায় গিয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ ও আব্দুস সালাম’র বহিষ্কারের দাবি জানাবো কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে।

তিনি আরো বলেন, এই নির্বাচনে আমরা কোন দলের প্রার্থীকে সার্পোট অথবা ভোট দিব না। আমরা যদি আওয়ামী লীগকে ভোট দেই তাহলে আওয়ামী লীগের ভোটের পাল্লা ভারি হবে। আর যদি ইসলামী আন্দোলনকে ভোট দেই তাহলে তাদের ভোটের পাল্লা ভারি হবে। তাই আমরা ইউনিয়ন নির্বাচনে ভোট দেওয়া থেকে বিরত থাকব।

সালাম ২০০১ সালে সংসদ নির্বাচনে ভুল তথ্য দিয়ে বিএনপির নেতা সরোয়ার ভাইকে চরমোনাই নিয়ে এসে নির্বাচনের দিন ব্যাপক অপমান সহ হত্যার ষড়যন্ত্র করে ছিলেন। চলতি বছরের ১৬ আক্টোবর জেলা বিএনপির সভপতি এবায়েদুল হক চাঁন ভাইকে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তির দোয়া অনুষ্ঠান উপলক্ষে চরমোনাইতে এনে নির্বাচনে আ’লীগের সার্পোট দেওয়াও চেষ্টা চলালে ব্যর্থ হয়ে যান সালাম রাঢ়ী। তবে দোয়া মোনাজাতের কথা হলেও সেখানে কোন দোয়া মোনাজাত হয়নি বলে নেতাকর্মীদের অভিযোগ। তাই চরমোনাই ইউনিয়ন বিএনপি’র অঙ্গ সংগঠনের নেতকর্মীরা সালাম রাঢ়ীকে বহিষ্কার করার দাবি জানিয়েছেন।

 




আজকের আবহাওয়া

পুরাতন সংবাদ খুঁজুন

November 2021
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  

আমাদের ফেসবুক পাতা


এক্সক্লুসিভ আরও

1851 Shares
%d bloggers like this: